আরব আমিরাতে আজানের পরিবর্তন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

মসজিদে ডেকে আনার পরিবর্তে আরব আমিরাত কর্তৃপক্ষ এখন আজানের মাধ্যমে মানুষকে বাড়িতে বসে নামাজ পড়তে বলছে। দেশটিতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। তাই এ ভাইরাসের বিস্তার থামাতে আজানের বাণী বদলে দিলো দেশটি। খালিজ টাইমস ও গালফ নিউজের বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে বিবিসি।

খবরে বলা হয়, গত সোমবার থেকে আরব আমিরাতের মসজিদগুলো থেকে যে আজান দেয়া হয় তাতে একটি নতুন বাক্য যুক্ত করা হয়েছে। এতে মানুষদের মসজিদে না এসে বাড়িতে বসে নামাজ পড়ার আহবান জানানো হচ্ছে। ইসলাম ধর্মের রীতিতে মসজিদে এসে নামাজ পড়ার আহ্বান জানিয়ে যে আজান দেয়া হয় তার বাণীতে একটি বাক্য হচ্ছে ‘হাইয়া আলা আল-সালাহ’ – যার অর্থ নামাজ পড়তে আসুন। নতুন আজানে শোনা যাচ্ছে মুয়াজ্জিন বলছেন, ‘আল-সালাতু ফি বুয়ুুতিকুম’ – অর্থাৎ বাড়িতে থেকেনামাজ পড়–ন।

মুয়াজ্জিনকে এ বাক্যটি দু’বার বলতে শোনা যায়।

দুবাইয়ের ইসলামিক এফেয়ার্স এ্যান্ড চ্যারিটেবল এ্যাকটিভিজ ডিপার্টমেন্টকে উদ্ধৃত করে গালফ নিউজ জানাচ্ছে, ওই বিভাগের ইনস্টাগ্রাম পেজে এ নিয়ে একটি পোস্ট করা হয়েছে। এতে বলা হয়, প্রতিষ্ঠানটি তার সামাজিক দায়িত্বে¡র প্রতি অঙ্গীকার অনুযায়ী দুবাইয়ের সব মসজিদে জামাতে নামাজ পড়া স্থগিত থাকবে এবং জনগণকে তাদের বাড়িতে থেকে নামাজ পড়তে বলা হবে। এদিকে খালিজ টাইমস জানিয়েছে, করোনা আতঙ্কের কারণে অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ থাকবে আরব আমিরাতের মসজিদগুলো। তবে সময় মত আজান দেয়া হবে যাতে নামাজের সময় নিয়ে মুসলিমরা সচেষ্ট থাকতে পারেন।