দীর্ঘ ২৫ মাস কারাবাসের পর নিজ বাসভবনে যাচ্ছেন খালেদা জিয়া

বিশেষ প্রতিবেদন:

দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া সরকারের নির্বাহী আদেশে ছয় মাসের জন্য মুক্তি পেয়েছেন। দীর্ঘ ২৫ মাস কারাগারে থাকার পর শর্তসাপেক্ষে সরকার তাকে মুক্তি দিলো।

 

সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে বুধবার বিকাল চারটার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) প্রিজন সেল থেকে ছাড়া পান তিনি। এরপর তাকে নিয়ে যাওয়া হয় গুলশানে নিজ বাসভবন ফিরোজায়।

 

বেলা দুইটার কিছু পর কারা কর্তৃপক্ষ মুক্তির ছাড়পত্র নিয়ে বিএসএমএমইউতে যায়।

 

এর আগে দুপুর আড়াইটায় খালেদা জিয়ার ভাই ভাই শামীম ইস্কান্দার, বোন সেলিনা ইসলাম ও ছেলে তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জোবাইদা রহমানের বড় বোন শাহিনা খান জামান বিন্দু বিএসএমএমইউতে যান। এ সময় কয়েকশ নেতাকর্মীকে সেখানে জড়ো হতে দেখা যায়। স্বজনরা সেখানে পৌঁছানোর মিনিট দশেক আগে আসেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এর আগে দুপুরে খালেদা জিয়ার মুক্তির আদেশে সই করা হয় বলে জানিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। বলেছিলেন, আর কিছুক্ষণের মধ্যে মুক্তি পাবেন খালেদা জিয়া। প্রধানমন্ত্রীর কাছে পরিবারের পক্ষ থেকে মুক্তির আবেদন জানানোর পরিপ্রেক্ষিতে খালেদা জিয়ার সাজা ছয় মাস স্থগিত করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

মঙ্গলবার, ছয় মাসের জন্য সাজা স্থগিত এবং এই সময় বিদেশ যেতে পারবেন না শর্তে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানান আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। ম ঙ্গলবার নিজ বাসায় সংবাদ সম্মেলনে আইনমন্ত্রী জানান, খালেদা জিয়ার ভাই শামীম ইস্কান্দার, বোন সেলিমা হোসেন ও তার স্বামী রফিকুল ইসলামের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আইনমন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে নির্বাহী আদেশে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।