অনলাইনে নারীদের সঙ্গে প্রতারণা করে ৩ বিয়ে, যুবক গ্রেফতার

নিউজ ডেস্ক, এটিভি সংবাদ 

নারীর সঙ্গে ভার্চুয়ালি সম্পর্ক গড়ে তুলে প্রতারণা করে বিয়ের কথা বলে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি তুলে তা ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে টাকা-পয়সা ও স্বর্ণালঙ্কার হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে মো. নাজমুল হাসান নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

তার স্ত্রী পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং পরিচালিত পুলিশের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে তার এসব প্রতারণার বিষয়ে অভিযোগ করার পর তা তদন্ত করে দোষী প্রমানিত হওয়ায় তাকে গ্রেফতার করা হয়।

অভিযোগপত্রে ওই নারী উল্লেখ করেন, তার স্বামী অনেক মেয়েকে এভাবে প্রতারিত করেছেন। কিন্তু লোকলজ্জায় কেউ তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি বলে তিনি জানান।

পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স থেকে অভিযোগটি তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ডিএমপি’র শ্যামপুর মডেল থানার ওসিকে নির্দেশ দেয়া হয়। শ্যামপুর থানা পুলিশ তাৎক্ষনিকভাবে ওই নারীর সঙ্গে যোগাযোগ করে।

পরবর্তীতে থানায় ওই নারীর লিখিত অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে শ্যামপুর মডেল থানার ওসি মফিজুল আলম এবং এসআই দেবকুমার আচার্যের নেতৃত্বে একটি টিম গঠন করা হয়। অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা সাপেক্ষে ওই টিম তথ্যপ্রযুক্তি ও নানা গোয়েন্দা কৌশল অবলম্বন করে অভিযুক্ত মো. নাজমুল হাসানকে গ্রেফতারের জন্য বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায়।

কিন্তু, চতুর আসামি বারবার তার অবস্থান পরিবর্তন করতে থাকে। পুলিশও তার পিছু ছাড়েনি। অবশেষে ১৬ ফেব্রুয়ারি ভোররাতে সিরাজগঞ্জ জেলার সদর থানার পৌর এলাকাধীন সয়াধানবাড়ি এলাকা থেকে আসামিকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

আসামিকে গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদকালে তিনি ভার্চুয়াল রিলেশনের মাধ্যমে বিভিন্ন মেয়ের সঙ্গে প্রতারণামূলক অবৈধ সম্পর্ক স্থাপনসহ ইতোমধ্যে তিনটি বিয়ে করেছে বলে স্বীকার করেন।

সিরাজগঞ্জের যে স্থান থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে, সেখানেও তিনি এক নারীর সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করেছেন বলে স্বীকার করেন। তার বিরুদ্ধে আইনিব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে এআইজি (মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স) মো. সোহেল রানা মিডিয়াকে জানিয়েছেন।