হেফাজতের ডাকা হরতালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, এটিভি সংবাদ  

হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতালের সমর্থনে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে  ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করেছেন দলটির নেতাকর্মীরা। সড়কের কয়েকটি স্থানে টায়ার, গাছের গুঁড়ি ও বাঁশে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করছেন তারা। এতে পূর্বাঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় সানারপাড় ও সাইনবোর্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধ যুবকের নাম শাকিল (৩২)। তিনি সিদ্ধিরগঞ্জের সানারপাড় এলাকার বাসিন্দা।

জানা যায়, পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী ফজরের নামাজের পর থেকে মহাসড়কের কাঁচপুর থেকে সাইনবোর্ড পর্যন্ত মহাসড়কের আটটি স্পটে টায়ার জ্বালিয়ে অবস্থান নেয় হেফাজতের নেতাকর্মীরা। এ সময় হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা হরতালের সমর্থনে খণ্ড খণ্ড মিছিল করে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কয়েকবার হেফাজত কর্মীদের মহাসড়ক থেকে সরে যেতে বললেও হেফাজত নেতাকর্মীরা মহাসড়ক ছেড়ে যাননি।

একপর্যায়ে সকাল সাড়ে ১০টায় সানারপাড় ও সাইনবোর্ড এলাকায় হেফাজত নেতাকর্মীদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সংঘর্ষ বাধে। এতে পুলিশ হরতাল সমর্থকদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ারশেল এবং ফাঁকা গুলি ছোড়ে। এতে একজন গুলিবিদ্ধসহ ৫ জন আহত হন।

ফজরের নামাজের পর থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কাঁচপুর পশ্চিম ঢাল, শিমরাইল চৌরাস্তা, ইউটার্ন, মাদানীনগর মাদ্রাসা, দশতলা ভবন এলাকা, মৌচাক, সানারপাড় ও সাইনবোর্ড এলাকায় হেফাজতের নেতাকর্মীদের অবস্থানের কারণে যান চলাচল বন্ধ যায়।

এর আগে শনিবার সিদ্ধিরগঞ্জের মৌচাক এলাকায় বিক্ষোভ মিছিলে হেফাজতে নেতা মাওলানা মাহমুদুল ইসলাম হরতাল পালনের জন্য সবাইকে সড়কে অবস্থান নেওয়ার আহ্বান জানান।

সকাল ৮টার দিকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা হেফাজতে ইসলামের সভাপতি মুফতি বশির উল্লাহ শিমরাইল পয়েন্টে বক্তব্য রাখেন। এ সময় তিনি প্রশাসনের উদ্দেশ্যে বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণভাবে আমাদের হরতাল কর্মসূচি পালন করছি। আপনারা আমাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে বাধা দিতে আসবেন না, বাধা দিলে পরিণতি ভয়াবহ হবে।

হরতাল চলাকালে র‍্যাব ও পুলিশ সদস্যরা তাদের কয়েক দফা মহাসড়ক থেকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেও ব্যর্থ হন।

সকাল সাড়ে ১০টায় সাইনবোর্ড ও সানারপাড় এলাকায় মহাসড়ক থেকে পুলিশ হরতাল সমর্থকদের সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। হরতাল সমর্থকরা নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর ইটপাটকেল  ছুড়লে পুলিশও ফাঁকা গুলি ছোড়ে। তবে তারা মহাসড়ক থেকে সরবেন না বলে ঘোষণা দিয়েছেন।

এদিকে সিদ্ধিরগঞ্জের সানারপাড় এলাকায় র‍্যাব ও পুলিশের টিয়ারশেল ও ফাঁকা গুলি ছুড়লে শাকিল গুলিবিদ্ধ হন। এ সময় আরও চারজন আহত হয় বলে স্থানীয়রা জানান। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মশিউর রহমান জানান, হেফাজত নেতাকর্মীদের বুঝিয়ে মহাসড়ক থেকে সরিয়ে দিতে চেষ্টা চালাচ্ছি।