হাতিরঝিলে প্রাইভেটকারে নারীর লাশ, পুলিশ হেফাজতে স্বামী

নিউজ ডেস্ক, এটিভি সংবাদ 

রাজধানীর হাতিঝিলের আমবাগান এলাকায় প্রাইভেটকারের ভেতর থেকে ঝিলিক আলম (২৪) নামের এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সড়ক দুর্ঘটনায় ওই নারী নিহত হয়েছে বলে তার স্বামী দাবি করলেও মৃত্যু নিয়ে এখন রহস্য তৈরি হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী সাকিব আলমকে (৩৮) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে হাতিরঝিল থানা পুলিশ।

জানা গেছে, শনিবার সকালের দিকে হাতিরঝিলের আমবাগান এলাকায় একটি প্রাইভেটকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফুটপাতে উঠে যায়। পরে  গাড়ির পেছনের সিট থেকে অচেতন অবস্থায় ঝিলিক আলমকে পুলিশ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঝিলিকের শরীরের কোথাও কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ফলে সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে বলে যে দাবি তার স্বামী সাকিব আলম করছেন তা নিয়ে সন্দেহ তৈরি হয়েছে।

এ বিষয়ে হাসপাতালে সাকিব আলমকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি এ প্রতিবেদকের সঙ্গে রেগে উঠেন।

নিহতের শরীরে কোনো আঘাত নেই, তাহলে তিনি কিভাবে মারা গেলেন? জানতে চাইলে সাকিব বলেন, আমি কি জানি? আমাকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করবেন না, পুলিশের সঙ্গে কথা বলেন।

এক পর্যায়ে তিনি রেগে গিয়ে মিরপুরের এমপি মো. ইলিয়াস মোল্লাকে তার নানা বলে পরিচয় দেন।

এ বিষয়ে হাতিরঝিল থানার এসআই মো. গোলাম কুদ্দুস মিডিয়াকে জানান, আমরা সকালে খবর পেয়ে হাতিরঝিলের আমবাগান এলাকায় এসে দেখতে পাই একটা প্রাইভেটকার ফুটপাতে উঠে গেছে। গাড়িটির চাকাও পানচার হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, পেছনের সিটে শুয়ে থাকা অবস্থায় এক নারীকে দেখতে পাই। পরে সাকিব আলম বলেন, আমার স্ত্রী আহত হয়েছে। পরে তাদের দু’জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক ঝিলিককে মৃত ঘোষণা করেন।

সাকিব পরিবার নিয়ে গুলশান-২ রোড নম্বর ৩৬ বাসা নাম্বার ২২/সি তে থাকেন। এসআই গোলাম কুদ্দুস আরও বলেন, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাকিবকে ঢামেক থেকে আটক করে হাতিরঝিল থানায় নেওয়া হয়েছে। বিষয়টি গুলশান থানায় জানানো হয়েছে।