মাদারীপুরে বাক-প্রতিবন্ধী ভ্যান চালক জুয়েলের লাশ উদ্ধার

শফিক স্বপন, মাদারীপুর প্রতিনিধি, এটিভি সংবাদ

মাদারীপুর গাছবাড়ীয়া এলাকায় কলাবাগান থেকে বাক-প্রতিবন্ধী ভ্যান চালক জুয়েল বেপারী (৩২) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিবার (৪ এপ্রিল) সকালে মাদারীপুর সদর উপজেলার পেয়ারপুর ইউনিয়নের গাছবাড়ীয়া গ্রামের দালাল বাড়ীর পিছনে কলাবাগান থেকে উদ্ধার করা হয় লাশটি। নিহত জুয়েল বেপারী সদর উপজেলার গাছবাড়ীয়া এলাকার আজমত বেপারীর ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়  সুত্রে জানা যায়, গত দুইদিন আগে গাছবাড়ীয়া একটি বিয়ে বাড়ীতে নাচগান করে এবং পরেরদিন শনিবার একই বাড়ীতে খাবারের অনুষ্ঠান শেষে রাত ১২টার দিকে মস্তফাপুর বাসস্টান্ড আবুল হোটেল থেকে ৪টা রুটি ও ২টি ডিম ভাজি নিয়ে যায় তখন সাথে কয়েকজন লোক ছিল। এবং সকালে গাছবাড়ীয়া রাস্তার পাশে ভোর রাতে নামাজ পড়তে এসে স্থানীয় একজনে একটি ভ্যান দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ স্থানীয় গ্রাম পুলিশের হেফাজতে রাখতে বলে এর এক ঘন্টা পর একই এলাকার আব্দুল হাই বেপারীর (দালাল বাড়ী) বাড়ীর পিছনে কলাবাগানে জুয়েলের লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে শরীরের বিভিন্ন স্থান ছুরির আঘাতসহ লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠায়।

উল্লেখ্য এলাকায় আদিত্যপত্র বিস্তার নিয়ে প্রায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে থাকে, পুলিশের মামলা ছাড়াও দুইপক্ষের একাধিক মামলা রয়েছে মাদারীপুর সদর মডেল থানায়

আবুল হোটেলের কর্মচারি তোতা জানান, গতকাল আমার কাছ থেকে গাছবাড়ীয়া খোকন ৪টি রুটি ও ২টি ডিম ভাজি নিয়ে গেছে সে সময় ওই ভ্যান চালক দোকানের সামনে ভ্যানের উপরে বসা ছিল এবং নাস্তা নিয়ে তার ভ্যানেই তারা চলে যায়।

নিহত জুয়েলের বাবা আছমত বেপারী ফোনে জানান, আমার ছেলের কোন শত্রু নাই, আমার আছে তাই হয়তো আমার ছেলেকে মেরে ফেলেছে। আমি যশোর আছি এলাকায় এসে থানায় অভিযোগ করবো।

মাদারীপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) এহসানুর রহমান ভূইয়া জানান, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছি। এছাড়া আমরা প্রাথমিকভাবে ধারনা করছি এই ছেলেটিকে অন্য কোন স্থানে মেরে এখানে ফেলে রেখে গেছে।