সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের জামিন আদেশ রোববার

সৈকত মনি, এটিভি সংবাদ 

সরকারি নথি চুরির চেষ্টার অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়ে দুই দিন ধরে জেলে থাকা প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলাম জামিন পাননি।

বৃহস্পতিবার জামিন শুনানি শেষে প্রায় দুই ঘণ্টা পর ঢাকার মুখ্য মহানগর আদালতের (সিএমএম) হাকিম বাকী বিল্লাহ জানিয়েছেন, এ বিষয়ে রোববার আদেশ দেয়া হবে। এর আগে দুপুর একটার দিকে ভার্চুয়াল আদালতে জামিন আবেদনের ওপর শুনানি শুরু হয়। প্রায় এক ঘণ্টা শুনানি শেষে বিচারক জানান, পরে আদেশ দেয়া হবে।

এ সময় আসামি পক্ষের আইনজীবী এহসানুল হক সমাজী বলেন, ‘মেহেরবানি করে আজকেই আদেশ দেবেন। ’জবাবে বিচারক বলেন, ‘হ্যাঁ, আজকেই দেব।’ কিন্তু পরে জানিয়ে দেন জামিন বিষয়ে আদেশ দেয়া হবে আগামী রোববার।

আদালতে শুনানি করেন রোজিনার আইনজীবী প্রশান্ত কুমার কর্মকার ও এহসানুল হক সমাজীসহ বেশ কয়েকজন আইনজীবী। এর আগে মঙ্গলবার (১৮ মে) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জসিম রিমান্ড নামঞ্জুর করে জামিন শুনানির জন্য আজ (২০ মে) দিন ধার্য করেন।

ওইদিন শাহবাগ থানার মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) আরিফুর রহমান সরদার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করেছিলেন। বিচারক রিমান্ড নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। পরে তাকে গাজীপুরের কাশিমপুরে অবস্থিত কেন্দ্রীয় মহিলা কারাগারে রাখা হয়।

মঙ্গলবার আসামিপক্ষের আইনজীবী প্রশান্ত কুমার কর্মকার সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের জামিনের আবেদন করেন। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ঢাকা মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর আব্দুল্লাহ আবু বিরোধিতা করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক রিমান্ড নামঞ্জুর করেন।

ওইদিন বেলা ১১টার একটু পরে সিএমএম আদালতে তোলা হয়ে রোজিনাকে। এর আগে তাকে শাহবাগ থানা থেকে আদালতে নেওয়া হয়। সকাল ৮টার দিকে রোজিনা আদালতে পৌঁছান। সে সময় তাকে আদালতের হাজতখানায় রাখা হয়।