হাতীবান্ধায় প্রেমের বিয়ে, বউ নিয়ে বাড়ি ফেরা হলনা রাসেলের!

লালমনিরহাট প্রতিনিধি, এটিভি সংবাদ 

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় প্রেমে ধরা পড়ে বিয়ে। বিয়ের পর শশুর বাড়িতে অবস্থান। বিদায়ের আগের দিন পুকুরের গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে মৃত্যু হয় রাসেল (২২) নামে এক যুবকের।

সোমবার (২৪ মে) দুপুর দুইটার দিকে উপজেলার কারবালার দীঘির পাড়ে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর নির্বাক হয়ে পড়ে নববধূ বিজলী খাতুন।

জানা গেছে, গত সপ্তাহে ঐ এলাকার বাক প্রতিবন্ধী হালিম পাগলের মেয়ের সাথে প্রেমে ধরা পড়ে বিয়ে হয় সিন্দুর্না এলাকার মৃত রাজ্জাক খলিফার ছেলে রাসেলের। বিয়ের পর থেকে রাসেল তার শশুর বাড়িতে অবস্থান করছে। আগামীকাল রাসেলের বিদায় নিয়ে নতুন বউসহ বাড়িতে যাবার কথা, কিন্তু তা আর হলনা।

আজ দুপুর দুইটার দিকে বউয়ের বাধা নিষেধ উপেক্ষা করে ছোট শ্যালক আতিকুল ইসলাম (১১) সহ পুকুরে পানিতে গোসল করতে নামে রাসেল। গোসল করার সময় শালা দুলাভাই পুকুরের মাঝখানে গেলে দুর্বল হয়ে পড়ে রাসেল। এ সময় রাসেল তার শ্যালক আতিকুল ইসলামকে বলে ভাইরে আমার পা আর চলছে না আমাকে একটু ধর। আতিকুল ইসলাম রাসেলের হাত ধরলে সে আতিকুলকে টানতে থাকে। এ সময় আতিকুল ইসলাম ভয় পেয়ে হাত ঝটকা দিয়ে ছেড়ে নিলে রাসেল পানিতে তুলিয়ে যায়। পরে খবর পেয়ে উপজেলা ফায়ার সার্ভিসের লোক এসে পুকুরের তলা হতে রাসেলকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে। তবে উদ্ধারের পর রাসেলের পেট থেকে কোন পানি বের করতে পারেনি ফায়ার সার্ভিসের লোক।

এদিকে যে গর্তে পড়ে রাসেলের মৃত্যু হয়, কয়েক বছর আগে ড্রেজার মেশিন দিয়ে সেখান থেকে প্রচুর বালু উত্তোলন করা হয়েছিলো বলে এলাকাবাসী জানান।

পাটিকাপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুল ইসলাম সাদাত বলেন, আমি খবর পাবার সাথে সাথে ছুটে আসি। আগামীকাল রাসেলের বউকে নিয়ে বাড়ি যাবার কথা ছিলো। তার আগে আজ ছেলেটির অকাল মৃত্যুতে তিনি খুবই মর্মাহত বলে জানান।

হাতীবান্ধা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সিভিল ডিফেন্সের লিডার নুরে আলম সিদ্দিকি বলেন, গোসল করতে নেমে পানিতে অধিক সময় হাটাহাটি করার কারণে রাসেলের শরীর দুর্বল হয়। এই সময় মাঝ পুকুরে গর্তে পড়ে গেলে দম বন্ধ বা হার্ড এটাকে তার মৃত্যু হতে পারে।