রংধনু ব্যান্ড বিতর্কে শাস্তি পাচ্ছেন না জার্মান গোলরক্ষক, বিতর্কে বুদাপেস্ট

স্পোর্টস ডেস্ক, এটিভি সংবাদ

‘রংধনু ব্যান্ড’ বিতর্কে জার্মানি ফুটবল দলের গোলরক্ষক তথা অধিনায়ক ম্যানুয়েল ন্যুয়ারকে শাস্তির কবলে পড়তে হচ্ছে না। এই ইস্যুতে জার্মান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের বক্তব্যতে সন্তুষ্ট হয়েছে উয়েফা। উল্টো সমকামীদের বিরুদ্ধে কড়া আইন চালু করে বিতর্কের মুখে পড়ে গিয়েছে হাঙ্গেরি। চলতি ইউরো কাপের দুটি সেমিফাইনাল বুদাপেস্টে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার ভাবনা পুনর্বিবেচনা করতে শুরু করেছে ইউরোপীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন।

কী করেছিলেন নয়ার

চলতি ইউরো কাপের এফ গ্রুপে ফ্রান্স ও পর্তুগালের বিরুদ্ধে ম্যাচে চলাকালীন জার্মানি ফুটবল দলের গোলরক্ষক তথা অধিনায়ক ন্যুয়ারকে হাতে রংধনু ব্যান্ড পরে খেলতে দেখা যায়। যা সাধারণত এলজিবিটি কমিউনিটির প্রতীক বহন করে। ইউরো শুরুর আগে প্রদর্শনী ম্যাচেও তাকে একই আর্ম ব্যান্ড পরে মাঠে নামতে দেখা গিয়েছিল। বিষয়টি উয়েফার নজরে পড়তেই তারা নড়েচড়ে বসেছিল। জার্মান গোলরক্ষক তথা অধিনায়ক কোনও রাজনৈতিক কারণে এই কাজ করে থাকলে, তাকে শাস্তি পেতে হবে বলে জানানো হয়েছিল। সেক্ষেত্রে আর্থিক জরিমানার পাশাপাশি ম্যাচ সাসপেন্ডের খাঁড়া ঝুলছিল নয়ারের ঘাড়ে।

কী জানাল জার্মান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন

সোশ্যাল মিডিয়ায় এক বিবৃতি লিখে জার্মান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, ন্যুয়ারের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেবে না উয়েফা। কারণ জার্মান গোলরক্ষক তথা অধিনায়কের হাতে পরিলক্ষিত হওয়া ‘রংধনু ব্যান্ড’ কোনও সম্প্রদায় কিংবা রাজনৈতিক মতাদর্শের থেকে নয়, বৈচিত্র এবং ‘ভাল কারণ’ বোঝাতে ব্যবহার করা হয়েছে বলে উয়েফাকে জানিয়েছে ডিএফবি। সে জবাবে সন্তুষ্ট হয়েছে ইউরোপীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন।

বিতর্কে হাঙ্গেরি

করোনাভাইরাসের প্রকোপে ইংল্যান্ডে কড়াকড়ি অব্যাহত থাকায় ফাইনাল রেখে ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম থেকে ইউরো কাপের দুটি সেমিফাইনাল সরানোর ভাবনাচিন্তা শুরু করেছে উয়েফা। প্রাথমিকভাবে ঠিক হয়েছিল বুদাপেস্টে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হতে পারে ওই দুই ম্যাচ। ইতিমধ্যে এলজিবিটি কমিউনিটির বিরুদ্ধে কড়া আইন বলবৎ করেছে হাঙ্গেরি সরকার। তারপর বুদাপেস্টে ইউরো কাপের আর ম্যাচ আয়োজন করা আদৌ করা উচিত কিনা, তা নিয়ে ভাবনাচিন্তা শুরু করেছে ইউরোপীয় ফুটবল সংস্থা।