কোম্পানীগঞ্জে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষে ৬ জন গুলিবিদ্ধ, বাড়িঘর ভাঙচুর

স্থানীয় লোকজনের ভাষ্য, চরএলাহী এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে এই দুটি পক্ষের বিরোধ দীর্ঘদিনের। ওই বিরোধের জের ধরে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে আওয়ামী লীগের নেতা আবদুল গনির অনুসারীরা প্রথমে চরএলাহী বাজারে ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটিয়ে চেয়ারম্যান রাজ্জাকের কয়েকজন অনুসারীকে মারধর করেন। এরপর রাজ্জাকের অনুসারীরা সংঘবদ্ধ হয়ে গনির অনুসারীদের ওপর পাল্টা হামলা চালালে দুপক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া, হামলা ও সংঘর্ষ শুরু হয়। এ সময় বেশ কিছু ককটেলের বিস্ফোরণ ও গুলির শব্দ শোনা যায়।

ইউপি চেয়ারম্যান আবদুর রাজ্জাকের ভাই আবদুল আজিজ খোকন দাবি করেন, তাঁর ভাই রাজ্জাক এলাকায় নেই। এই হামলার সঙ্গে তাঁর ভাই এবং তাঁদের কোনো অনুসারী জড়িত নন। আওয়ামী লীগের নেতা আবদুল গনির নেতৃত্বে তাঁর ভাই কামাল, বেলাল, নবী ও হেলাল মেম্বার প্রথমে চরএলাহী বাজারে ককটেলের হামলা চালিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করেন। একপর্যায়ে তাঁদের (রাজ্জাক) কয়েকজন অনুসারীকে মারধর করেন এবং ধনু নামের এক ব্যক্তির বাড়িতে হামলা চালান।