ভিজিএফ কার্ড দেওয়ার নামে গৃহবধূকে ধর্ষণ, ইউপি সদস্য গ্রেফতার

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি, এটিভি সংবাদ

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় ভিজিএফ কার্ড দেওয়ার কথা বলে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে উঠেছে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। দেলোয়ার হোসাইন নামের ওই ইউপি সদস্যকে গ্রেফতারের পর তাকে আদালতে পাঠানো হয়। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) দুপুরে সাটুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশরাফুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। দেলোয়ার হোসাইন বরাইদ ইউনিয়ন পরিষদের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য।

ভুক্তভোগী ওই গৃহবধূ জানান, স্বামী-সন্তান নিয়ে কষ্টে জীবন কাটছে তার। ১০ টাকা দরে চাল কিনতে ভিজিএফ কার্ডের জন্য অনেক দিন ধরে ইউপি সদস্য দেলোয়ারের কাছে যায়। মেম্বার প্রথম দিক থেকেই কার্ডের বিনিময়ে কিছু চাচ্ছিলো।

ksrm

বিষয়টি ভালোভাবে বুঝে উঠতে পারিনি। বুধবার রাতে তিনি ফোন করে কার্ড নিতে তার বাড়িতে যেতে বলেন। আমার স্বামী বাড়িতে না থাকায় সকালে যাবো বলে তাকে জানাই। তখন মেম্বার বলে ঠিক আছে তোমার আসতে হবে না আমিই কার্ড নিয়ে আসছি। কার্ড নিয়ে মেম্বার আমার বাড়িতে এসে ফোন করে বের হতে বলেন। ঘর থেকে বের হলে তিনি আমাকে জড়িয়ে ধরে ধর্ষণ করেন। আমার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাকে আটকে রাখে। পরে থানায় লিখিত অভিযোগ করি।

সাটুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশরাফুল আলম বলেন, ওই নারী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেছেন। দেলোয়ার হোসাইনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।

বিষয়টি সঠিক তদন্ত শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন, এটিভি সংবাদের সম্পাদক এস এম জামান।