দুর্নীতির মহোৎসব বন্ধ করতে হলে জনগণের সরকার দরকার : ববি হাজ্জাজ

নিউজ ডেস্ক, এটিভি সংবাদ 

জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলনে (এনডিএম) চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ বলেছেন, মেগা প্রকল্পে সীমাহীন লুটপাট আর ভাড়াটে বিদ্যুত কেন্দ্রের ক্যাপাসিটি চার্জ প্রদানের মাধ্যমে রাষ্ট্রীয় অর্থের তছরুপ করে গত এক যুগে আওয়ামী লীগ সরকারের মন্ত্রি-আমলা এবং সুবিধাভোগীরা বিপুল পরিমান অর্থ পাচার করেছে। অর্থ পাচার বন্ধ হলেই ক্ষমতার পরিবর্তন হবে। কারণ প্রশাসন থেকে শুরু করে ছাত্রলীগের নেতা, মন্ত্রিদের আত্মীয়দের পর্যন্ত দুর্নীতির অবাধ সুযোগ করে দিয়েই ক্ষমতা আঁকড়ে আছে বর্তমান সরকার। অর্থপাচারের বরপুত্ররা প্রশাসনকে নিজেদের পকেট কমিটির মত ব্যবহার করছে। এই দুর্নীতির মহোৎসব বন্ধ করতে হলে নতুন জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠার কোন বিকল্প নেই।

শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) ঢাকায় ফেনী সমিতি মিলনায়তনে এনডিএম আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি। দলের পক্ষ থেকে ‘ভাড়াটে বিদ্যুত কেন্দ্রের ক্যাপাসিটি চার্জ প্রদান বন্ধ, পাচারকৃত অর্থ ফেরত আনা এবং মেগা প্রকল্পে দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ’ দাবিতে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন এনডিএম এর যুগ্ম মহাসচিব মোমিনুল আমিন।

ksrm

সভাপতির বক্তব্যে ববি হাজাজ  বলেন, আওয়ামী দুর্নীতিবাজদের নগ্ন উল্লাস দেখে ঘৃণার নিশ্বাস ফেলছে দেশের সাধারণ জনগণ। যেদিন জনবিষ্ফোরণ ঘটবে সেদিন মন্ত্রি-এমপিদের বাসভবনের প্রতিটি ইট খুলে নেয়া হবে। অদূরদর্শী মেগা প্রকল্প একদিকে যেমন করের বোঝা এবং মূল্যস্ফীতি বাড়াচ্ছে, অন্যদিকে দেশ থেকে প্রতিবছর বিপুল অর্থ পাচার হয়ে দেশের অর্থনীতিকে ঋণ নির্ভর করে তুলছে। আমরা প্রতিটি মেগা প্রকল্পে দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশের জন্য বিচার বিভাগীয় নিরপেক্ষ তদন্ত কমিশন গঠনের দাবি জানাচ্ছি।

আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ মুসলিম লীগের মহাসচিব কাজী আবুল খায়ের, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মহাসচিব এডভোকেট ইয়ারুল ইসলাম, জাগপার মহাসচিব অধ্যাপক ইকবাল হোসেন, এবি পার্টির যুগ্ম আহবায়ক এডভোকেট তাজুল ইসলাম, এনপিপির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী আনিসুর রহমান দেওয়ান, এনডিএম এর সাংগঠনিক সম্পাদক লায়ন নুরুজ্জামান হীরা প্রমুখ।