atv sangbad

Blog Post

আম্রমুকুলে মুখরিত চাঁপাইনবাবগঞ্জের আমবাগান

সেরাজুল ইসলাম (চাঁপাইনবাবগঞ্জ), এটিভি সংবাদ 

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর বাংলাদেশ আর আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম বাগানগুলো গাছে গাছে প্রতিটি ডগায় ঝুলে আছে মুকুল। এরই মধ্যে কিছু গাছে আমের কুড়িও ফুটতে শুরু করেছে। আমের ধরণ বিভিন্ন রকমের এর মধ্যে, আশ্বিনা সর্বশেষ আম, ফজলী, গোপালভোগ, খিরসাপাত, ল্যাংড়া, মোহনভোগ, গুটি ইত্যাদি জাতের আম।

আম ব্যবসায়ী মোঃ দাউদ আলী বলেন, আম গাছে প্রচুর মুকুল আছে। ঠিকমত পরিচর্যা করছি, আশা করছি ভাল ফলন পাবো। আমের বাজার ভাল হলে কিছুটা স্বস্তি ফিরে পাবো।

অপরদিকে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. নজরুল ইসলাম জানান, জেলার নাচোল ছাড়া শিবগঞ্জ, গোমস্তাপুর, সদর ও ভোলাহাট উপজেলায় শুধু পুরাতন বড় বড় আম গাছ কাটা হচ্ছে। আমবাগান কাটা হলেও সেসব স্থানে লাগানো হচ্ছে পরিকল্পিতভাবে হাইব্রিড জাতের আম গাছ। তাই জেলায় আমবাগান যেমন বাড়ছে, তেমনি উৎপাদনও বাড়ছে।

উৎপাদন বাড়লেও চাহিদা না থাকায় দাম না পাওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, একটি বড় আম না হওয়া আমগাছ কেটে অন্তত ১০টি হাইব্রিড আম গাছ লাগানোর ফলে উৎপাদন বাড়ছে। তাছাড়া সরকার সারে ভর্তুকি দেওয়ায় এবং কীটনাশকের মূল্য সহনীয় পর্যায়ে থাকায় পরিচর্যা খরচ খুব একটা বাড়েনি।

তার দাবি, এ বছর আমবাগান ও আমের উৎপাদন দু’টিই বেড়েছে। কৃষকও অসময়ের আম উৎপাদন ও বেশি আম উৎপাদন করে বেশি লাভবান হচ্ছেন। সেই সঙ্গে আমের রপ্তানি বাড়াতে কৃষি বিভাগ এরই মধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছে। আর আম বিদেশে রপ্তানি বাড়লে কৃষক আমের দাম পাবেন।

কৃষি সম্প্রসারন কার্যালয়ের তথ্যমতে, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৩৮ হাজার হেক্টর জমিতে আমের চাষ হচ্ছে। এর মধ্যে পুরনো গাছের সংখ্যা ৫০ লাখ। যার মধ্যে পাঁচ লাখ আম গাছ কাটা হয়েছে।

আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জ। চাঁপাইনবাবগঞ্জের মানুষ আমের ব্যবসার উপর ৭০ ভাগ নির্ভরশীল বলে জানা যায়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ব্রেকিং নিউজ :